,

সংবাদ শিরোনাম :
«» রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ২৪ জন এইডস রোগী «» মিয়ানমারে জাতিসংঘের সেফ জোন প্রতিষ্ঠার সুপারিশ:আইপিইউ সম্মেলনে প্রস্তাব গৃহীত «» যুবরাজ সিংয়ের বিরুদ্ধে নারী নির্যাতনের মামলা «» খালেদা জিয়াকে বাসায় পৌঁছে দিতে নেতা-কর্মীদের মানবঢাল «» রোহিঙ্গা ইস্যুতে রাশিয়া-চীনও পাশে আছে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী «» রোহিঙ্গা সংকট: জাতিসংঘ মহাসচিবের সঙ্গে স্পিকারের বৈঠক «» রোহিঙ্গাদের জন্য ২০০ কোটি টাকা বরাদ্দ দিয়েছে আইওএম «» পরোয়ানায় শঙ্কিত নই, আটকের জন্য প্রস্তুত «» রাখাইনের গভীর সমুদ্রবন্দরের ৭০ শতাংশের মালিক হচ্ছে চীন «» বিমানবন্দরে নামলেন খালেদা, অভ্যর্থনা জানালেন ফখরুল «» বিএনপির খুশি খুশি ভাব কয়দিন থাকবে: ওবায়দুল কাদের «» অনুপ্রবেশ থেমে নেই রোহিঙ্গাদের «» খালেদার ফেরা: বিমানবন্দরে শোডাউনের ব্যাপক প্রস্তুতি বিএনপির «» দুর্ঘটনায় আহতদের চিকিৎসা নিশ্চিত করতে নীতিমালা «» পানামা পেপার্স ফাঁস করা প্রভাবশালী নারী সাংবাদিককে হত্যা «» উ. কোরিয়ার ওপর রাশিয়া ও ইইউ’র নিষেধাজ্ঞা «» রোহিঙ্গা সংকটে বাংলাদেশকে সহায়তা দিতে বিশ্ব সম্মেলনের ডাক জাতিসংঘের «» রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অবৈধ সীমের ছড়াছড়ি : বিভিন্ন অপকর্ম ও অপরাধে জড়িয়ে পড়ছে রোহিঙ্গারা «» ড্রোন দিয়ে সিনেমাটোগ্রাফি করতে চান? «» মিয়ানমারে আবারও সেনা অভ্যুত্থানের শঙ্কা «» ইসির সংলাপে বিএনপির ২০ প্রস্তাব «» ভেসে আসলো আরও ৩ রৌহিঙ্গা নারীর লাশ:এ পর্যন্ত ৩৭টি লাশ উদ্ধার «» স্থানীয়দের চাকরিতে অগ্রাধিকার দেয়া না হলে উখিয়া-টেকনাফে এনজিও প্রতিষ্ঠানকে ঢুকতে দেয়া হবে না- এমপি বদি «» রোহিঙ্গারা ঐতিহাসিকভাবে মিয়ানমারের নাগরিক: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী «» টেকনাফের উপকূলীয় অঞ্চল বাহারছড়ায় মুআসের ব্যাতিক্রমধর্মী ফ্রি চিকিৎসা ক্যাম্পের শুভ উদ্বোধন «» মিয়ানমার থেকে ১ লাখ টন চাল আমদানির প্রস্তাব অনুমোদন «» রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ১১ কোটি ৮০ লাখ টাকার ল্যাট্রিন করে দেবে ইউনিসেফ «» হোয়াইক্যং সীমান্ত থেকে ৩১ চোরাই গরু জব্দ করেছে বিজিবি «» নদীভাঙনের মতো ভেঙেছে তারকাদের সংসার: আট মাসে ঘর ভাঙল ১১ তারকার «» ইকুয়েডর গোল করার পর সৃষ্টিকর্তাকে ‘স্মরণ করলেন’ মেসি

টেকনাফে ট্রান্সফরমার লসের গ্যাড়াকলে পড়ে ৮ গ্রাহকের হয়রানী

ssssসাইদুর রহমান সোহেল, টেকনাফ: বিদ্যুৎ চোর ধরিয়ে দিতে গিয়ে ট্রান্সফরমার লস্ এর গ্যাড়াকলে পড়ে ৮ জন নিয়মিত গ্রাহক বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ করতে পারছেননা বলে গুরুতর অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ব্যাপারে লিখিত আবেদন ও বিদ্যুৎ চোরদের হাতেনাতে ধরার পরও কোন প্রতিকার না হওয়ায় একদিকে যেমন বিদ্যুৎ চুরি বাড়ছে, অন্যদিকে নিয়মিত গ্রাহক গণের হয়রানি বৃদ্ধি পাচ্ছে। এ সমস্যার কারণে ৮জন গ্রাহক গত ১ বছর ধরে বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ করা থেকে বিরত রয়েছেন। চাঞ্চল্যকর এ ঘটনাটি ঘটেছে টেকনাফ সদর ইউনিয়নের দরগাহছড়া গ্রামে। সরেজমিন পরিদর্শণে গিয়ে  জানা যায়, উক্ত গ্রামের নুর আহমদ হিসাব নং- ৩৯৫০, হোছন আহমদ হিসাব নং- ৩৭০০, এনামুল হক হিসাব নং- ২২১৫, আব্দুর রহমান হিসাব নং -৪০৫৫, আমির হামজা হিসাব নং – ৪০৫২, নুর হোসেন হিসাব নং -৪০৫০, আমিনা খাতুন হিসাব নং-২২২০, জহির আহমদ হিসাব নং -৩৭৫০ পল্লি বিদ্যুতের নিয়মিত গ্রাহক। ওই গ্রামের হাজ্বী আবুল বশর, শামসুননাহার, পারুল আক্তার, নসরত আলী, ফরিদ আহমদ, আব্্দুল জব্বার সওদাগর, আমির হোসেন, মীর আহমদ, কবির আহমদ ও জামাল হোসেন এ ১১ জন দীর্ঘদিন ধরে বিদ্যুৎ লাইনে হুকিং করে অবৈধভাবে বিদ্যুৎ ব্যবহার করে আসছে। উক্ত গ্রামের বাসিন্দা লম্বরী মলকাবানু হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষক মোঃ ইসমাইল জানান, অবৈধভাবে বিদ্যুৎ ব্যবহারকারীদের সাথে টেকনাফ পল্লি বিদুৎ অফিসের কতিপয় কর্মীদের যোগসাজস রয়েছে। ফলে গ্রামে বিদ্যুৎ চুরি রোধ করা সম্ভব হচ্ছেনা। এমনকি বিদুৎকর্মীদের এনে অবৈধভাবে বিদুৎ ব্যবহারকারীদের ধরিয়ে দেয়া ও পাম্প মেশিন উদ্ধার করা সত্তেও তাদের বিরুদ্ধে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ না করায় বিদ্যুৎ চোরদের  দাপট ক্রমে বেড়েই চলছে। উপরন্তু অবৈধভাবে বিদ্যুৎ ব্যবহারকারীদের ধরিয়ে দেয়ার খেসারত দিতে হচ্ছে বৈধ বিদ্যুৎ ব্যবহারকারীদের। এই অসহ্য হয়রানী থেকে প্রতিকার পেতে বৈধ গ্রাহকগণ গত ২১ আগস্ট ও ১৯ ডিসেম্বর দু’ দফায় লিখিতভাবে টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী অফিসার, জিএম কক্সবাজার, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট টেকনাফ, ডিজিএম ও টেকনাফ মডেল থানার ওসি বরাবর আবেদন করা সত্বেও কোন প্রতিকার পাওয়া যায়নি। বরং ট্রান্সফরমারের নীচে একটি অতিরিক্ত মিটার বসিয়ে দেয়া হয়েছে। এই মিটার রিডিং নিয়ে অবৈধভাবে বিদ্যুৎ ব্যবহারকারীদের বিলগুলো বৈধ ব্যবহারকারীদের নামে বিলের সাথে প্রতিমাসে প্রায় ১ হাজার টাকা করে অতিরিক্ত দাবী করা হচ্ছে। যার কারণে বিল পরিশোধ করা সম্ভব হচ্ছেনা। তিনি আক্ষেপ করে আরো জানান- অবৈধভাবে বিদ্যুৎ ব্যবহারকারীদের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়ে পল্লি বিদুৎ সমিতিকে সহযোগীতা করতে গিয়ে বর্তমানে উভয় সংকটে পড়েছে বৈধ বিদ্যুৎ গ্রাহকগণ। একদিকে বহাল তবিয়তে থাকা বিদ্যুৎ চোরদের টিটকারী অন্যদিকে ট্রান্সফরমার লসের নামে পল্লি বিদ্যুতের অতিরিক্ত বিল। ২১ জানুয়ারী বিকালে এব্যাপারে জানতে চাইলে টেকনাফ পল্লি বিদ্যুতের ডিজিএম জানান, বিদ্যুত চুরি বন্ধ করতে না পেরে  উক্ত মিটার লাগানো ও অবৈধ বিদ্যুৎ ব্যবহারকারীদের বিরুদ্ধে মামলা দেয়া হয়েছে।

(1108) বার এই নিউজটি পড়া হয়েছে

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।