,

সংবাদ শিরোনাম :
«» বিপিএলে সেরা ঢাকা ডাইনামাইটস «» নাফনদী থেকে রোহিঙ্গা বোঝাই ৫টি নৌকা মিয়ানমারে ফেরত পাঠাল বিজিবি «» টেকনাফ পৌর শাখার ১নং ওয়ার্ড যুবদলের সন্মেলন অনুষ্টিত «» টেকনাফে ১০ হাজার ইয়াবাসহ এক যুবক আটক: মোটরসাইকেল জব্দ «» টেকনাফ সীমান্ত অতিক্রমকালে রোহিঙ্গা বোঝাই ৯টি নৌকা ফেরত পাঠাল বিজিবি «» চট্টগ্রামে ‘হুজি আস্তানায়’ র‌্যাবের অভিযান, আটক ৫ «» সেন্টমার্টিন আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভায় অধ্যাপক মোঃ আলী-দলকে ক্ষমতায় রাখতে হলে ত্যাগী নেতা-কর্মীদের দিয়ে সংগঠনকে শক্তিশালী করতে হবে «» ঈদ-ই-মিলাদুন্নবীর ছুটি ১৩ ডিসেম্বর «» বিপিএল ফাইনাল শিরোপার লড়াইয়ে শুক্রবার মুখোমুখি ঢাকা ও রাজশাহী «» বাংলাট্রিবিউনের সেরা ৫ প্রতিবেদকে কক্সবাজারের আজি «» টেকনাফ আওয়ামীলীগের বিশেষ বর্ধিত সভা ১৩ ডিসেম্বর «» হলুদ সাংবাদিকতা দাপ্তরিক দুর্নীতিকে উৎসাহিত করে «» পাকিস্তানের বিধ্বস্ত বিমানের ইঞ্জিনে ত্রুটি ছিল «» নাফনদী থেকে মাছ শিকাররত অবস্থায় দুই জেলেকে ধরে নিয়ে গেছে মিয়ানমারের সীমান্ত রক্ষীরা «» টেকনাফ সীমান্ত থেকে রোহিঙ্গা বোঝাই আরও ৮টি নৌকা ফেরত পাঠাল বিজিবি «» বঙ্গোপসাগরে নিম্নচাপ, কক্সবাজারসহ সমুদ্রবন্দর গুলোতে ১ নম্বর সতর্ক সংকেত «» হাসপাতাল থেকে রোগীর মেয়েকে তুলে নিয়ে গণধর্ষণ «» কোন দেশের হয়ে খেলবে সানিয়ার সন্তান? «» টেকনাফের মানবপাচারকারী তৈয়ুব গ্রেফতার «» বাহারছড়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের আহবায়ক কমিটির অনুমোদন «» চট্টগ্রামে ইয়াবা দিয়ে সাংবাদিককে ফাঁসানোর চেষ্টা : দুই পুলিশ প্রত্যাহার «» নব নির্বাচিত জেলা পরিষদ সদস্য শফিক মিয়াকে ওলামালীগ নেতা মা: আব্দুর রহমানের প্রাণঢালা অভিনন্দন «» নাফনদী থেকে এক মহিলার লাশ উদ্ধার : রোহিঙ্গাবাহী ৪টি নৌকা ফেরত পাঠাল বিজিবি «» প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী শাকিল আর নেই «» সেন্টমার্টিন বঙ্গোপসাগরে পৃথক অভিযানে ৬ লাখ ইয়াবা জব্দ: ট্রলারসহ ৪ পাচারকারী আটক «» দুবাইয়ে সড়ক দুর্ঘটনায় ৩ বাংলাদেশিসহ ৫ জন নিহত «» মিয়ানমারের সহিংসতার ঘটনার পর টেকনাফ উখিয়ায় আদম পারাপারে দালালের সংখ্যা বাড়ছে «» টেকনাফ সড়কের গাড়ি থামিয়ে একযাত্রীকে প্রহার ও টাকা-স্বর্ণালংকার লুটের অভিযোগ! «» মুক্তিযুদ্ধ প্রজন্মলীগ কক্সবাজার জেলা শাখার বিশেষ বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত «» সাংগঠনিক সফরে নেপাল গেলেন ৪র্থ শ্রেণী সরকারি কর্মচারি সমিতির সভাপতি শহিদুল্লাহ

টেকনাফে ট্রান্সফরমার লসের গ্যাড়াকলে পড়ে ৮ গ্রাহকের হয়রানী

ssssসাইদুর রহমান সোহেল, টেকনাফ: বিদ্যুৎ চোর ধরিয়ে দিতে গিয়ে ট্রান্সফরমার লস্ এর গ্যাড়াকলে পড়ে ৮ জন নিয়মিত গ্রাহক বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ করতে পারছেননা বলে গুরুতর অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ব্যাপারে লিখিত আবেদন ও বিদ্যুৎ চোরদের হাতেনাতে ধরার পরও কোন প্রতিকার না হওয়ায় একদিকে যেমন বিদ্যুৎ চুরি বাড়ছে, অন্যদিকে নিয়মিত গ্রাহক গণের হয়রানি বৃদ্ধি পাচ্ছে। এ সমস্যার কারণে ৮জন গ্রাহক গত ১ বছর ধরে বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ করা থেকে বিরত রয়েছেন। চাঞ্চল্যকর এ ঘটনাটি ঘটেছে টেকনাফ সদর ইউনিয়নের দরগাহছড়া গ্রামে। সরেজমিন পরিদর্শণে গিয়ে  জানা যায়, উক্ত গ্রামের নুর আহমদ হিসাব নং- ৩৯৫০, হোছন আহমদ হিসাব নং- ৩৭০০, এনামুল হক হিসাব নং- ২২১৫, আব্দুর রহমান হিসাব নং -৪০৫৫, আমির হামজা হিসাব নং – ৪০৫২, নুর হোসেন হিসাব নং -৪০৫০, আমিনা খাতুন হিসাব নং-২২২০, জহির আহমদ হিসাব নং -৩৭৫০ পল্লি বিদ্যুতের নিয়মিত গ্রাহক। ওই গ্রামের হাজ্বী আবুল বশর, শামসুননাহার, পারুল আক্তার, নসরত আলী, ফরিদ আহমদ, আব্্দুল জব্বার সওদাগর, আমির হোসেন, মীর আহমদ, কবির আহমদ ও জামাল হোসেন এ ১১ জন দীর্ঘদিন ধরে বিদ্যুৎ লাইনে হুকিং করে অবৈধভাবে বিদ্যুৎ ব্যবহার করে আসছে। উক্ত গ্রামের বাসিন্দা লম্বরী মলকাবানু হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষক মোঃ ইসমাইল জানান, অবৈধভাবে বিদ্যুৎ ব্যবহারকারীদের সাথে টেকনাফ পল্লি বিদুৎ অফিসের কতিপয় কর্মীদের যোগসাজস রয়েছে। ফলে গ্রামে বিদ্যুৎ চুরি রোধ করা সম্ভব হচ্ছেনা। এমনকি বিদুৎকর্মীদের এনে অবৈধভাবে বিদুৎ ব্যবহারকারীদের ধরিয়ে দেয়া ও পাম্প মেশিন উদ্ধার করা সত্তেও তাদের বিরুদ্ধে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ না করায় বিদ্যুৎ চোরদের  দাপট ক্রমে বেড়েই চলছে। উপরন্তু অবৈধভাবে বিদ্যুৎ ব্যবহারকারীদের ধরিয়ে দেয়ার খেসারত দিতে হচ্ছে বৈধ বিদ্যুৎ ব্যবহারকারীদের। এই অসহ্য হয়রানী থেকে প্রতিকার পেতে বৈধ গ্রাহকগণ গত ২১ আগস্ট ও ১৯ ডিসেম্বর দু’ দফায় লিখিতভাবে টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী অফিসার, জিএম কক্সবাজার, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট টেকনাফ, ডিজিএম ও টেকনাফ মডেল থানার ওসি বরাবর আবেদন করা সত্বেও কোন প্রতিকার পাওয়া যায়নি। বরং ট্রান্সফরমারের নীচে একটি অতিরিক্ত মিটার বসিয়ে দেয়া হয়েছে। এই মিটার রিডিং নিয়ে অবৈধভাবে বিদ্যুৎ ব্যবহারকারীদের বিলগুলো বৈধ ব্যবহারকারীদের নামে বিলের সাথে প্রতিমাসে প্রায় ১ হাজার টাকা করে অতিরিক্ত দাবী করা হচ্ছে। যার কারণে বিল পরিশোধ করা সম্ভব হচ্ছেনা। তিনি আক্ষেপ করে আরো জানান- অবৈধভাবে বিদ্যুৎ ব্যবহারকারীদের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়ে পল্লি বিদুৎ সমিতিকে সহযোগীতা করতে গিয়ে বর্তমানে উভয় সংকটে পড়েছে বৈধ বিদ্যুৎ গ্রাহকগণ। একদিকে বহাল তবিয়তে থাকা বিদ্যুৎ চোরদের টিটকারী অন্যদিকে ট্রান্সফরমার লসের নামে পল্লি বিদ্যুতের অতিরিক্ত বিল। ২১ জানুয়ারী বিকালে এব্যাপারে জানতে চাইলে টেকনাফ পল্লি বিদ্যুতের ডিজিএম জানান, বিদ্যুত চুরি বন্ধ করতে না পেরে  উক্ত মিটার লাগানো ও অবৈধ বিদ্যুৎ ব্যবহারকারীদের বিরুদ্ধে মামলা দেয়া হয়েছে।

(1108) বার এই নিউজটি পড়া হয়েছে

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।