Teknaf News24:: টেকনাফ নিউজ২৪ এ আপনাকে স্বাগতম
সংবাদ শিরোনাম :
«» এ মাসেই এসএসসির ফল প্রকাশ, আগামী মাসে একাদশে ভর্তি কার্যক্রম শুরু «» অসহায় সেই ৭৩ বাবা-মাকে র‌্যাব কর্মকর্তার ‘ঈদ উপহার «» হঠাৎ করে খালেদা জিয়ার ডাক পেলেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল «» ৬৪ শতাংশ শিশুর পরিবার কঠিন খাদ্য সংকটে «» কোনো হাসপাতাল থেকে রোগী ফেরানো যাবে না «» বাহরাইনে সাধারণ ক্ষমার মেয়াদে অবৈধ অবস্থানকারীদের আটক করা হবে না «» বিশ্বের সবচেয়ে বড় দানবাক্স আরব আমিরাতে বুর্জ খলিফা! «» লাদাখ সীমান্তে চীনা হেলিকপ্টার, যুদ্ধবিমান মোতায়েন ভারতের «» সিকিম সীমান্তে ভারত-চীন সেনাদের সংঘর্ষ «» দেখে নিন:এক নজরে কোন জেলায় কতজন করোনায় আক্রান্ত «» কাশ্মীর সীমান্তে উড়ছে পাকিস্তানি যুদ্ধবিমান, উদ্বিগ্ন ভারত «» অসহায় শিশু জয়নব কে বাঁচাতে এগিয়ে আসুন «» মাঠে নেই বিত্তশালী মন্ত্রী এমপিরা «» করোনায় ২৪ ঘণ্টায় ১৪ মৃত্যু, একদিনে সর্বোচ্চ ৮৮৭ রোগী শনাক্ত «» করোনা চিকিৎসায় দেশে উৎপাদন হলো রেমডেসিভির «» টেকনাফের বাহারছড়ায় দুই বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী কে হত্যার চেষ্টা আটক -৩ :অধরায় মূল হোতা «» দশ দিনেই চিকিৎসার সাফল্য ৪র্থ রিপোর্টেও নেগেটিভ : তুমব্রুর সেই করোনার প্রথম রোগীর জয় «» সৌদিতে করোনায় আক্রান্ত ৩৭১৭ বাংলাদেশি, মৃত ৫৫ «» কারাগারে করোনায় আক্রান্ত হওয়ার ভয়ে সৌদি রাজকন্যা «» আমাদের মতো বেকুব জনগণের বেঁচে থাকার দরকারইবা কী? «» চলছে মাগফিরাতের ১০দিন «» সোমালিয়ায় করোনার ত্রাণবাহী বিমান বিধ্বস্ত, নিহত ৬ «» মধ্যপ্রাচ্যে করোনা ছড়িয়েছে ইরান! «» সবাই সরকারের প্রশংসা করলেও বিএনপি পারে না: তথ্যমন্ত্রী «» ৬ সপ্তাহে ১২ লাখ মানুষকে ত্রাণ দিয়েছে বিএনপি «» বিশ্বে করোনা আক্রান্তের তালিকায় উর্ধ্বমুখী বাংলাদেশ «» একদিনে ৭৮৬ জনের করোনা শনাক্ত, মৃত্যু ১ «» ১০ মে খুলবে দোকানপাট ও শপিংমল «» নতুন মাত্রায় লকডাউন,১০ দিনের আরও সাধারণ ছুটি দিয়েছে সরকার «» কেরালায় ‘নৌকাবাড়ি’তে হচ্ছে আইসোলেশন ওয়ার্ড

মাঠে নেই বিত্তশালী মন্ত্রী এমপিরা

বিত্তশালী ও ব্যবসায়ীদের চেয়ে রাজনীতির ঐতিহ্যের ধারাবাহিকতায় যারা এমপি-মন্ত্রী হয়েছেন, তারাই এখন মানুষের দুয়ারে দুয়ারে। করোনার ঝুঁকি নিয়েও তারা জনগণের পাশে দাঁড়িয়েছেন। কেউ কেউ নিজ এলাকায় অবস্থান করে নিজস্ব অর্থায়নে খাদ্যসহায়তা কার্যক্রম পরিচালনা করছেন। নাটকীয় ধান কাটার কাজে অংশ না নিয়ে কৃষককে কিনে দিয়েছেন ধান কাটার মেশিন। কেউ কেউ তালিকা করে রাতের আঁধারেও বাড়ি বাড়ি পৌঁছে দিচ্ছেন খাদ্যসামগ্রী। ‘ডাক্তারের কাছে রোগী নয়, রোগীর কাছে ডাক্তার’ ব্যতিক্রমী স্বাস্থ্যসেবা চালু করেও নজির স্থাপন করেছেন কেউ কেউ। আবার এমপি-মন্ত্রী না হয়েও এলাকায় নিজ উদ্যোগে হাসপাতালে আইসিইউ স্থাপন করে অনন্য নজির স্থাপন করেছেন এমন ব্যক্তিও আছেন।

অন্যদিকে বিত্তশালী ও ব্যবসায়ী হিসেবে সুখ্যাতি থাকা এমপি-মন্ত্রীরা এলাকায় জনগণের পাশে না দাঁড়িয়ে ঘাপটি মেরে আছেন। জনগণের কোনো কাজেই আসছেন না তারা।

সূত্রমতে, অনেক বিত্তশালী এমপি-মন্ত্রী করোনার সংকটকালে নিজেদের গুটিয়ে নিয়েছেন। ভোটের সময় জনগণের পাশে থাকার প্রতিশ্রুতি দিয়ে ভোট নিলেও এখন মাঠে নেই তারা। করোনা শুরু হওয়ার পর থেকেই তারা এলাকাছাড়া। আবার কেউ কেউ সরকারি ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রমে অংশ নিতে এক-দুবার এলাকায় গেছেন। অন্যদিকে যারা রাজনীতিতে পোড় খাওয়া তারাই নিজ এলাকার জনগণের পাশে রয়েছেন। ভোলা-১ আসনের এমপি বর্ষীয়ান রাজনীতিক তোফায়েল আহমেদের ব্যক্তিগত তহবিল থেকে নির্বাচনী এলাকার ৩২ হাজার পরিবারকে তিন ধাপে খাদ্যসহায়তা দেওয়া হচ্ছে। জেলা আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে সহযোগী ও ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠনের নেতা-কর্মীরা দলমত নির্বিশেষে প্রয়োজন অনুযায়ী বাড়ি বাড়ি গিয়ে খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে দিচ্ছেন। করোনার প্রভাব যতদিন থাকবে ততদিন মানুষের পাশে থাকার অঙ্গীকার পোড় খাওয়া এই রাজনীতিকের।

এমপি-মন্ত্রী না হয়েও নিজস্ব অর্থায়নে ফেনীর একটি হাসপাতালে নিবিড় পর্যবেক্ষণ কেন্দ্র (আইসিইউ) স্থাপন করে অনন্য নজির সৃষ্টি করেছেন প্রধানমন্ত্রীর সাবেক প্রটোকল অফিসার আলাউদ্দিন আহমেদ চৌধুরী নাসিম। গত ৫ মে ভিডিও কনফারেন্সে ফেনী ডায়াবেটিস হাসপাতালে স্থাপিত আইসিইউর উদ্বোধন করেন অর্থায়নকারী প্রতিষ্ঠান ‘সালেহ উদ্দিন-হোসনে আরা চৌধুরী ফাউন্ডেশন’ ও ফেনী ইউনিভার্সিটি ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান আলাউদ্দিন আহমেদ চৌধুরী নাসিম। এ ছাড়াও তার ব্যক্তিগত তহবিল থেকে ফেনীতে ১ লাখ ৬০ হাজার পরিবারকে খাদ্যসহায়তা করা হয়েছে।

নিজস্ব তহবিল থেকে নিজ নির্বাচনী এলাকায় গরিব-অসহায় মানুষের মাঝে খাদ্যসহায়তা দিচ্ছেন দলের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য ও ঝালকাঠি-২ আসনের এমপি সাবেক শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু। আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরকে সংসদ ভবনের বাসা থেকে বের হতে মানা করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি ঢাকায় থাকলেও নির্বাচনী এলাকায় দুই উপজেলা ও এক পৌরসভায় ব্যক্তিগত তহবিল থেকে ৩১ মেট্রিক টন চাল, ২০ লাখ টাকা নগদ বিতরণ করেছেন তিনি। ২০ হাজার পরিবারকে খাদ্যসহায়তা করা হয়েছে। এ ছাড়া ৪ হাজার বিশেষ ইফতারি প্যাকেট বিতরণ করা হয়েছে। বসুরহাট পৌরসভার মেয়র মির্জা আবদুল কাদেরের নেতৃত্বে স্থানীয় নেতা-কর্মীরা কাজটি সমন্বয় করছেন। করোনার সংকটকালে নির্বাচনী এলাকায় অবস্থান করে গরিব-অসহায় মানুষের মাঝে খাদ্যসহায়তা দিয়ে যাচ্ছেন জামালপুর-৩ আসনের একটানা ছয়বারের এমপি আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম। এ ছাড়াও নির্বাচনী এলাকার মেলান্দহ ও মাদারগঞ্জে ৬টি বড় ও ১০টি ছোট ধান কাটার মেশিনও কিনে দিয়েছেন। খাদ্যসহায়তা দিয়েছেন ৪০ লাখ টাকার। জেলার শেখ হাসিনা মেডিকেল কলেজে তার উদ্যোগে বসানো হচ্ছে করোনার টেস্টিং ল্যাব। ভোলা-৪ আসনের সংসদ সদস্য আবদুল্লাহ আল ইসলাম জ্যাকব নির্বাচনী এলাকার গরিব-অসহায় মানুষকে খাদ্যসহায়তা দিচ্ছেন। নগর অর্থ সহায়তাও করছেন তিনি। করোনার শুরু থেকেই নির্বাচনী এলাকায় অবস্থান করে ভোলা-২ আসনের এমপি আলী আজম মুকুল, ভোলা-৩ আসনের এমপি নুরন্নবী চৌধুরী শাওন খাদ্যসহায়তা দিয়ে যাচ্ছেন। 

নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের এমপি শামীম ওসমানের ব্যক্তিগত উদ্যোগে ৩০ হাজার পরিবারকে খাদ্যসহায়তা দেওয়া হয়েছে। ডাক্তার, স্বাস্থ্যকর্মীদের মাঝে পিপিই বিতরণ ছাড়াও করোনা সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে। এ ছাড়াও দলমত নির্বিশেষে ৪০ লাখ নগদ টাকা বিতরণ করেছেন তিনি। শামীম ওসমানের পাশাপাশি স্ত্রী ও ছেলে নির্বাচনী এলাকার মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন।

ঢাকা দক্ষিণ সিটির বিদায়ী মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকন করোনার সংকটকালে নগরীর মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে প্রশংসা পেয়েছেন। একইভাবে মানুষের হৃদয় জয় করেছেন চট্টগ্রাম সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন।

কুমিল্লা শহরে নিজ এলাকায় অবস্থান করে করোনার সংকটকালে গরিব-অসহায় মানুষকে খাদ্যসহায়তা দিয়ে পাশে দাঁড়িয়েছেন কুমিল্লা-৬ আসনের এমপি আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহার। একইভাবে সংরক্ষিত নারী আসনের এমপি আঞ্জুম সুলতানা সীমাও রয়েছেন মানুষের পাশে। ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৬ আসনের এমপি ও সাবেক প্রতিমন্ত্রী ক্যাপ্টেন (অব.) এবি তাজুল ইসলাম ২২ হাজার পরিবারকে নিজস্ব অর্থায়নের খাদ্যসহায়তা দিয়েছেন। এ ছাড়াও মধ্যবিত্তের জন্য এবং নিম্নবিত্ত পরিবারকে সহায়তার জন্য খুলেছেন হটলাইন। ফোন করলেই খাবার পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে বাড়ি বাড়ি। যতদিন করোনার প্রভাব থাকবে ততদিন এই খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে দেওয়া হবে। এ ছাড়াও নগদ অর্থ বিতরণ করেছেন তিনি।

‘ডাক্তারের কাছে রোগী নয়, রোগীর কাছে ডাক্তার’ স্লোগানে নিজস্ব অর্থায়নে স্বাস্থ্যসেবা চালু করে ব্যতিক্রমী নজির স্থাপন করেছেন শরীয়তপুর-২ আসনের এমপি পানিসম্পদ উপমন্ত্রী এনামুল হক শামীম। ফোন করলেই রোগীর বাড়িতে হাজির হচ্ছেন ডাক্তাররা। এ ছাড়াও তার নিজস্ব অর্থায়নে এবং তার মায়ের নামে প্রতিষ্ঠিত ‘আশ্রাফুন্নেসা ফাউন্ডেশন’-এর উদ্যোগে ৩৩ হাজার পরিবারকে খাদ্যসহায়তা দেওয়া হয়েছে। এদিকে ধান কাটার ফটোসেশনে না মেতে কৃষককে ধান কাটার মেশিন ক্রয় করে দিয়েছেন নড়াইল-২ আসনের বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক মাশরাফি বিন মোর্তুজা। গঠন করেছেন একটি ভ্রাম্যমাণ মেডিকেল টিম, যারা প্রত্যন্ত অঞ্চলে সেবা দিয়ে যাচ্ছেন। সদর হাসপাতালে একটি জীবাণুনাশক কক্ষ স্থাপন করেছেন মাশরাফি। ডাক্তারদের জন্য বানিয়েছেন সেফটি চেম্বারও। আর নিজ ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে এলাকার দুস্থদের বিভিন্ন সহযোগিতা দিয়ে যাচ্ছেন দেশের ক্রিকেট ইতিহাসের সফলতম এই অধিনায়ক।

নোয়াখালী-৪ আসনের এমপি একরামুল হক চৌধুরী নিজস্ব অর্থায়নে মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন। তিনি একরাম চৌধুরী ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে এলাকার গরিব-অসহায় মানুষকে খাদ্যসহায়তা দিয়ে যাচ্ছেন। স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রী দিয়েছেন চিকিৎসক, স্বাস্থ্যকর্মী, পুলিশ, সাংবাদিকদের। নগদ টাকা ও খাদ্যসামগ্রী নিয়ে মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন নোয়াখালী-১ আসনের এমপি এইচ এম ইব্রাহিম। ফেনী-২ আসনের এমপি ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নিজাম উদ্দিন হাজারীর নিজস্ব অর্থায়নে ১ লাখ ৮০ হাজার পরিবারকে খাদ্যসহায়তা দিয়েছেন। এ ছাড়াও দলীয় নেতা-কর্মী ও জেলার প্রতিটি গ্রামে ইমাম-মুয়াজ্জিনদের সহায়তা দিয়েছেন তিনি। নিজ এলাকায় অবস্থান করে মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন ফরিদপুর-৩ আসনের এমপি ও আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য খন্দকার ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন। চট্টগ্রাম-১ আসনের এমপি আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন নির্বাচনী এলাকায় থেকে অসহায়-গরিব মানুষকে খাদ্যসহায়তা দিয়ে যাচ্ছেন। করোনার শুরু থেকেই নিজ এলাকা মীরেরসরাইয়ের গরিব-অসহায় মানুষের পাশে রয়েছেন তিনি। ঢাকা-১১ আসনের এমপি এ কে এম রহমতুল্লাহ কর্মহীন হয়ে পড়া ৩০ হাজার মানুষকে খাদ্যসহায়তা দিয়ে যাচ্ছেন। একইভাবে ঢাকা-১৯ আসনের এমপি ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. এনামুর রহমান রয়েছেন নির্বাচনী এলাকার জনগণের পাশে। পিরোজপুর-১ আসনের এমপি মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম নির্বাচনী এলাকার মানুষের পাশে রয়েছেন নিরন্তন। শুধু দরিদ্র মানুষকে নয়, বিভিন্ন পেশাজীবীর পাশেও রয়েছেন তিনি। চট্টগ্রাম-৭ আসনের এমপি তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ ও চট্টগ্রাম-১৩ আসনের এমপি ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাভেদ নির্বাচনী এলাকার মানুষকে খাদ্যসহায়তার পাশাপাশি নগদ অর্থ বিতরণ করছেন। দিনাজপুর-২ আসনের এমপি নৌ-পরিহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী নির্বাচনী এলাকার ২০ হাজার পরিবারকে যতদিন করোনার সংকট থাকবে ততদিন খাদ্যসহায়তা দেবেন। জামালপুর-৪ আসনের এমপি তথ্যপ্রতিমন্ত্রী ডা. মো. মুরাদ হাসান এলাকায় বাড়ি বাড়ি খাদ্যসহায়তা পৌঁছে দিচ্ছেন। করোনার সংকট চলাকালেও নিজ কাঁধে করে বাড়ি বাড়ি খাবার পৌঁছে দিচ্ছেন সাতক্ষীরা-৪ আসনের এমপি এস এম জগলুল হায়দার। এর আগের মেয়াদেও তিনি নির্বাচনী এলাকার অসহায়-গরিব মানুষের বাড়িতে কাঁধে করে খাবার পৌঁছে দিয়ে সবার দৃষ্টিতে আসেন। নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের জাতীয় পার্টির এমপি সেলিম ওসমান গরিব-অসহায় মানুষের তালিকা করে ঘরে ঘরে খাদ্যসহায়তা পৌঁছে দেওয়ার পাশাপাশি বিকাশের মাধ্যমে নগদ টাকা সহায়তা দিয়ে যাচ্ছেন। এ ছাড়াও করোনা চিকিৎসায় সম্পৃক্ত চিকিৎসক, স্বাস্থ্যকর্মীদের থাকা-খাওয়ার ব্যবস্থা করেছেন তিনি। এ ছাড়াও মাদারীপুর-১ আসনের এমপি ও জাতীয় সংসদের চিফ হুইপ নূর-ই আলম চৌধুরী লিটন, কুষ্টিয়া-৩ আসনের মাহবুব-উল আলম হানিফ, জয়পুরহাট-২ আসনের আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন, সিরাজগঞ্জ-২ আসনের হাবিবে মিল্লাত মুন্না, দিনাজপুর-৩ আসনের এমপি ইকবালুর রহিম, নেত্রকোনা-৩ আসনের এমপি অসীম কুমার উকিল, নওগাঁ-৫ আসনের নিজাম উদ্দিন জলিল জন, বাগেরহাট-২ আসনের শেখ সারহান নাসের তন্ময়সহ আরও ২০-২৫ জন এমপি নির্বাচনী এলাকায় নিজস্ব অর্থায়নে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করছেন।

(10) বার এই নিউজটি পড়া হয়েছে

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।