Teknaf News24:: টেকনাফ নিউজ২৪ এ আপনাকে স্বাগতম
সংবাদ শিরোনাম :
«» পুড়ছে মসজিদ-ঘরবাড়ি আর দোকানপাট, নীরবে দেখছে দিল্লির পুলিশ «» হিন্দুত্ববাদী তাণ্ডবে দিল্লিতে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ২৭ «» রইক্ষং শেখ রাসেল স্মৃতি সংসদের উদ্দোগে পবিত্র খতমে বুখারী ও দোয়া মাহফিল সম্পন্ন:দেশ ও জাতির কল্যাণ কামনা করে বিশেষ মোনাজাত «» বিভিন্ন অনলাইন নিউজে প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদে মাওলানা মুজিবুররহমান «» টেকনাফ-সেন্টমার্টিন রুটে আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করেই চলছে পারিজাত ও দোয়েল জাহাজ «» মিয়ানমার থেকে পিয়াঁজ আমদানি অব্যাহতঃ কমছেনা দাম «» রোহিঙ্গা ডাকাতদের আতংকে এলাকাবাসীর ঘুম নেই :রাত জেগে পাহারা দিচ্ছে গ্রামবাসী «» রামু উপজেলার পূর্ব গোয়ালিয়ায় সন্ত্রাসী হামলায় নারী পুরুষ সহ আহত-৭ «» বন্দর ও জাহাজ নির্মাণে (দুবাই) ইউএই’র বিনিয়োগ কামনা করেছেন প্রধানমন্ত্রী «» বিশ্ব ইজতেমার আখেরি মোনাজাত সম্পন্ন «» আমিন আমিন’ ধ্বনিতে প্রকম্পিত তুরাগ তীর «» হোয়াইক্যংয়ে ছুরিকাঘাতে এক স্কুল ছাত্র নিহত «» ২৬ জানুয়ারী হ্নীলা উম্মে সালমা ইসলামিয়া মহিলা দাখিল মাদ্রাসার ২য় বার্ষিক ইসলামী সম্মেলন «» ইরাকে মার্কিন দূতাবাসের কাছে আবারো রকেট হামলা «» ইরানের ক্ষেপণাস্ত্রে কোনো মার্কিন সৈন্য মারা যায়নি: ট্রাম্প «» ইরাকে ইরানি হামলায় মার্কিন সামরিক ঘাঁটির রাডার ব্যবস্থা সম্পূর্ণ ধ্বংস! «» মাওলানা আবছার উদ্দিন চৌধুরী কে স্বপদে বহাল রাখায় আরব আমিরাতে শুকরানা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্টিত «» হারুন অর রশিদ এর মেয়ের জন্য দোয়া কামনা «» কক্সবাজারে ইয়াবা ও অস্ত্র উদ্ধারে রেকর্ড «» বাংলাদেশের পাকিস্তান সফর নিয়ে তাড়াহুড়া করা উচিত নয় «» ১০ বছরে ৯ লাখ হাজার কোটি টাকা বিদেশে পাচার হয়েছে: মেনন «» জেএসসি-পিইসি পরীক্ষার ফল প্রকাশ ৩১ ডিসেম্বর «» গ্রাম পুলিশকে ১৯ ও ২০তম গ্রেডে উন্নীত করার নির্দেশ «» ৫০ কোটি মার্কিন ডলার বিনিয়োগে এগিয়ে চলছে নাফ ট্যুরিজম পার্কের কার্যক্রম «» ইহুদিবাদী ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী নেতানিয়াহুর পদত্যাগের দাবিতে উত্তাল তেলআবিব «» টেকনাফ র‌্যাবের হাতে ২লাখ ইয়াবাসহ মিয়ানমার নাগরিক আটক «» রোহিঙ্গাদের দ্রুত ফেরত নিতে মিয়ানমারের প্রতি বান কি-মুনের আহ্বান «» মহেশখালীতে ১২ জলদস্যু বাহিনীর ৯৬ সদস্য অস্ত্র ও গুলি জমা দিয়ে আত্মসমর্পণ «» কার্গো বিমানে পেঁয়াজ আমদানির সিদ্ধান্ত «» দাম বাড়ায় রাতে পেঁয়াজ ক্ষেত পাহারা

মিয়ানমার থেকে পিয়াঁজ আমদানি অব্যাহতঃ কমছেনা দাম

টেকনাফ স্থলবন্দরে ৬৫ হাজার ৪২৯ দশমিক ৯১৬ টন পিয়াজ আমদানি
মিয়ানমার থেকে পিয়াঁজ আমদানি অব্যাহতঃ কমছেনা দাম
মুহাম্মদ তাহের নঈমঃ
প্রতিদিন শত শত টন পিয়াঁজ বন্দরে খালাস হলে ও বাজারে তার তেমন কোন প্রভাব নেই।
গত সোমবার ১৩ জানুয়ারী একদিনে টেকনাফ স্থলবন্দরে ১৮টি ট্রলারে করে ১ হাজার ১৯২ দশমিক ৬৭৯ মেট্রিকটন পিয়াঁজ খালাস করা হয়েছে।
চলতি জানুয়ারি মাসে ১১ দফায় মিয়ানমার থেকে নৌপথে ৪ হাজার ৭২১ দশমিক ৮৮৯ মেট্রিক টন পিয়াঁজ আমদানি করা হয়েছে।এ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন টেকনাফ স্থলবন্দরের শুল্ক কর্মকর্তা আফসার উদ্দিন।
তিনি বলেন,গত বছরের ২৯ সেপ্টেম্বর থেকে পিয়াজ রফতানি বন্ধ করে দেয় ভারত। ৩০ সেপ্টেম্বর মিয়ানমার থেকে  প্রথম চালানে ৬৫০ টন পিয়াঁজ আসে। এরপর থেকে সর্বমোট সোমবার ১৩ জানুয়ারী বিকাল পর্যন্ত মিয়ানমার থেকে ৬৫ হাজার ৪২৯ দশমিক ৯১৬ টন পিয়াজ আমদানি করা হয়।
বন্দও সূত্রে প্রকাশ, সোমবার সকালে ব্যবসায়ী যদু বাবুর ১৩৪ দশমিক ৩২৭, ছৈয়দ করিমের ২৫৬ দশমিক ৬৩২, কামরুল হাসান ১৪২ দশমিক ৫৭০, বাহদুরের ৭০ দশমিক ৬৩৬,আব্দুল জব্বারের ৮৫ দশমিক ৪২৭, শওকতের ২২৮ দশমিক ৮৬০, মোহাম্মদ সজিবের ২১৩ দশমিক ৮৫৫, মোঃ নাছিরের ১৭ দশমিক ৬০১, নুর মোহাম্মদের ৪২ দশমিক ৭৭১ মেট্রিকটন পিয়াজ স্থলবন্দর আসে। তবে এখনও পাচঁ শতাধিক মেট্রিকটন পিয়াঁজ খালাসের অপেক্ষায় ট্রলারগুলো নদীতে নোঙর করে আছে।
তিনি আরও বলেন,মিয়ানমার থেকে আরও কয়েকশ’মেট্রিকটন পিয়াজ ভর্তি একাধিক  ট্রলার স্থলবন্দর পথে রওনা দিয়েছে। তবে দেশের স্বার্থে সংকট মোকাবিলায় পিয়াজ আমদানি বাড়াতে ব্যবসায়ীদের আরও বেশি উৎসাহিত করা হচ্ছে।
এ ব্যাপারে টেকনাফ স্থলবন্দর পরিচালনাকারী প্রতিষ্ঠানের ইউনাইটেড ল্যান্ড পোর্ট লিমিটেডের ব্যবস্থাপক জসিম উদ্দিন বলেন, মিয়ানমার থেকে বেশি পরিমাণে পিয়াজ আমদানি করছেন ব্যবসায়ীরা। গত সোমবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টা পর্যন্ত শতাধিক পিয়াজ ভর্তি ট্রাক দেশের বিভিন্ন বিভাগীয় শহরের উদ্দেশ্যে স্থলবন্দর  ত্যাগ করেছে।
এদিকে সারা দেশে একের পর এক ব্যবসায়ীকে হেনস্তা চাপ প্রয়োগ করার পরও পিয়াজের দাম কমার বদলে আরও বেড়েছে। চাহিদার তুলনায় বাজারে পর্যাপ্ত পিয়াজ সরবরাহ না থাকার কারণে। বিদেশ থেকে বর্তমানে যে পিয়াজ আমদানি হচ্ছে তা চাহিদার বড়জোর ২০ শতাংশ। ফলে মূল্য বৃদ্ধির কারণে পিয়াজ ব্যবহার ব্যাপকভাবে হ্রাস পেলেও দাম কমার বদলে বাড়ছে। গত ২৬ নভেম্বর ২০১৯ দেশের ৩২ জন আমদানিকারককে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদফতর। কর্তৃপক্ষের মতে, আমদানির পর পিয়াজ কোথায় কোথায় গেছে সে তথ্য পাওয়া গেছে জিজ্ঞাসাবাদে। কোনো অসাধু ব্যবসায়ী বাজার কারসাজিতে ভূমিকা রাখলে তাদের চিহ্নিত করে পরবর্তীতে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। বড় পিয়াজ আমদানিকারকরা যেসব পিয়াজ আমদানি করেছেন, সেগুলো কাদের কাছে কী দামে বিক্রি করেছেন, কোথায় বিক্রি করেছেন, তাদের নাম-ঠিকানাসহ সব তথ্য তারা সংগ্রহ করেছেন শুল্ক গোয়েন্দারা। আগামীতে প্রয়োজন হলে আড়তদার ও পাইকারি ব্যবসায়ীদেরও ডাকা হবে। সংশ্লিষ্টরা বলেছেন, ব্যবসায়ীদের ডেকে পিয়াজ আমদানি করার জন্য উদ্বুদ্ধ করা হচ্ছে; যাতে পিয়াজের বাজার দ্রুত সহনশীল হয়। গত আগস্ট থেকে ১৮ নভেম্বর পর্যন্ত সাড়ে তিন মাসের বেশি সময়ে ১ হাজার টনের বেশি পিয়াজ আমদানি করেছে ৪৫ আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান। প্রতি কেজি পিয়াজ আমদানিতে তাদের খরচ হয়েছে গড়ে ৩৮ টাকা ২৬ পয়সা। ব্যবসায়ীদের মধ্যে আতঙ্ক সৃষ্টি না হলে আরও কয়েক গুণ পিয়াজ আমদানি হতো, দাম মানুষের নাগালের মধ্যে থাকত। কিন্তু বিদ্যমান সমস্যার সমাধানের বদলে ব্যবসায়ীদের মধ্যে আতঙ্ক সৃষ্টির চেষ্টা সমস্যাকে কোথায় ঠেলে দেয়, দেড় মাসে পিয়াজের দাম ৭০০ ভাগ বৃদ্ধি তারই প্রমাণ। সংকট মোকাবিলায় বিদেশ থেকে পিয়াজ আমদানিতে উৎসাহিত না করে ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে জরিমানা নামের নির্যাতন চালানোর অপকৌশলে সংকট ঘোরতর রূপ ধারণ করেছে বলে জানান ভোক্তভোগিরা। স্বচেতন মহলের মতে, ভবিষ্যতে পিয়াজের এমন বিপর্যয় এড়াতে হলে সরকারের সংশ্লিষ্টদের উৎপাদন বৃদ্ধির উদ্যোগ নিতে হবে।#

(10) বার এই নিউজটি পড়া হয়েছে

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।