Teknaf News24:: টেকনাফ নিউজ২৪ এ আপনাকে স্বাগতম
সংবাদ শিরোনাম :
«» মিয়ানমার থেকে পিয়াঁজ আমদানি অব্যাহতঃ কমছেনা দাম «» রোহিঙ্গা ডাকাতদের আতংকে এলাকাবাসীর ঘুম নেই :রাত জেগে পাহারা দিচ্ছে গ্রামবাসী «» রামু উপজেলার পূর্ব গোয়ালিয়ায় সন্ত্রাসী হামলায় নারী পুরুষ সহ আহত-৭ «» বন্দর ও জাহাজ নির্মাণে (দুবাই) ইউএই’র বিনিয়োগ কামনা করেছেন প্রধানমন্ত্রী «» বিশ্ব ইজতেমার আখেরি মোনাজাত সম্পন্ন «» আমিন আমিন’ ধ্বনিতে প্রকম্পিত তুরাগ তীর «» হোয়াইক্যংয়ে ছুরিকাঘাতে এক স্কুল ছাত্র নিহত «» ২৬ জানুয়ারী হ্নীলা উম্মে সালমা ইসলামিয়া মহিলা দাখিল মাদ্রাসার ২য় বার্ষিক ইসলামী সম্মেলন «» ইরাকে মার্কিন দূতাবাসের কাছে আবারো রকেট হামলা «» ইরানের ক্ষেপণাস্ত্রে কোনো মার্কিন সৈন্য মারা যায়নি: ট্রাম্প «» ইরাকে ইরানি হামলায় মার্কিন সামরিক ঘাঁটির রাডার ব্যবস্থা সম্পূর্ণ ধ্বংস! «» মাওলানা আবছার উদ্দিন চৌধুরী কে স্বপদে বহাল রাখায় আরব আমিরাতে শুকরানা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্টিত «» হারুন অর রশিদ এর মেয়ের জন্য দোয়া কামনা «» কক্সবাজারে ইয়াবা ও অস্ত্র উদ্ধারে রেকর্ড «» বাংলাদেশের পাকিস্তান সফর নিয়ে তাড়াহুড়া করা উচিত নয় «» ১০ বছরে ৯ লাখ হাজার কোটি টাকা বিদেশে পাচার হয়েছে: মেনন «» জেএসসি-পিইসি পরীক্ষার ফল প্রকাশ ৩১ ডিসেম্বর «» গ্রাম পুলিশকে ১৯ ও ২০তম গ্রেডে উন্নীত করার নির্দেশ «» ৫০ কোটি মার্কিন ডলার বিনিয়োগে এগিয়ে চলছে নাফ ট্যুরিজম পার্কের কার্যক্রম «» ইহুদিবাদী ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী নেতানিয়াহুর পদত্যাগের দাবিতে উত্তাল তেলআবিব «» টেকনাফ র‌্যাবের হাতে ২লাখ ইয়াবাসহ মিয়ানমার নাগরিক আটক «» রোহিঙ্গাদের দ্রুত ফেরত নিতে মিয়ানমারের প্রতি বান কি-মুনের আহ্বান «» মহেশখালীতে ১২ জলদস্যু বাহিনীর ৯৬ সদস্য অস্ত্র ও গুলি জমা দিয়ে আত্মসমর্পণ «» কার্গো বিমানে পেঁয়াজ আমদানির সিদ্ধান্ত «» দাম বাড়ায় রাতে পেঁয়াজ ক্ষেত পাহারা «» লাতুরী খোলা মসজিদ নিয়ে প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ «» সশস্ত্র রোহিঙ্গা ডাকাত দলের খোঁজে র‍্যাবের হেলিকপ্টার অভিযান «» টেকনাফে কোটি টাকার ইয়াবাসহ উলুচামরীর মিজান আটক «» ঘুষের টাকাসহ ইনকাম ট্যাক্স ইন্সপেক্টর গ্রেফতার «» পিঁয়াজ আমদানিকারকদের পকেটে ১৫৯ কোটি টাকা

রোহিঙ্গা ডাকাতদের আতংকে এলাকাবাসীর ঘুম নেই :রাত জেগে পাহারা দিচ্ছে গ্রামবাসী

হাফেজ সাইফুদ্দীন আল মোবারকঃ                        রোহিঙ্গা ডাকাতদের আতংকে এলাকাবাসীর ঘুম নেই রাত জেগে পাহারা দিচ্ছে গ্রামবাসী
কক্সবাজার জেলার টেকনাফ উপজেলার হোয়াইক্যং ইউনিয়নের বেশ কয়েকটি গ্রামে রাত জেগে পাহারা দিচ্ছে গ্রামবাসী। মুক্তিপণ আদায়ে অপরণ,ডাকাতির ভয়ে এলাকা ছাড়ছে অনেকে।
হোয়াইক্যং ইউনিয়নের উনচিপ্রাং এর পশ্চিমে রইক্ষ্যং এলাকায় প্রায় অর্ধ লক্ষাদিক রোহিঙ্গাদের বসবাস।মানবিক কারণে রোহিঙ্গা বিতাড়িত হয়ে বাংলাদেশে আসার পরে যারা রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়েছেন, তাঁদের মাথার উপর লবণ দিয়ে বড়ই খাচ্ছে বলে মন্তব্য করেন স্থানীয় সচেতন মহল। জানা যায়,
গত ১৩ জানুয়ারী ২০২০ইং হোয়াইক্যং ইউনিয়নের উত্তর কানজর পাড়া এলাকায় বেশ কয়েকজন অপরিচিত লোক ঘুরাঘুরি করতে দেখলে স্থানীয়দের মনে সন্দেহ হয় যে, এরা কোন ডাকাত দলের সক্রিয় সদস্য হতে পারে। স্থানীয় লোকেরা তাদের পরিচয় জানতে চাইলে তারা পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। কিন্তু তারা কয়েকজন পালিয়ে যেতে সক্ষম হলেও স্থানীয় লোকেরা তাদের তিন সদস্য গ্রেফতার করে পুলিশের হাতে সোপর্দ করার জন্যে হোয়াইক্যং ফাড়ির (এএসআই)আরিফুল ইসলাম কে খবর দিলে,পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে তাদের কে নিয়ে যায়। ধৃত ডাকাতরা হচ্ছে ,মোঃবশির উল্লাহ পিতাঃসৈয়দ হোসেন,মোঃছব্বির আহমদ পিতাঃফজল করিম,রফিক পিতাঃনুরুল ইসলাম। এদিকে স্থানিয় জনতা কর্তৃক
এই রোহিঙ্গা তিন ডাকাতকে পুলিশে দেয়ার পর দিবাগত রাত আনুমানিক ১০ টায় আবারও রোহিঙ্গা ডাকাত দলের বাহিনী অস্ত্র সহকারে করাচি পাড়া এসে আবু বকর এবং নুরুল হোসেন সওদাগরের ঘরের বাহিরে তালা লাগিয়ে দেয় বলে জানায় ভূক্তভুগী নুরুল হোসেন।
স্থানিয় আবু বকর জানায়, করাচি পাড়ার পশ্চিমে কুটি নামক স্থানের পাশে তার ক্ষেত খামার আছে। গত দুইদিন আগে সে নিজের ক্ষেতে কাজ করতে গেলে সেখান থেকে আবু বকর কে অস্ত্রের মুখে তুলে নিয়ে যায় রোহিঙ্গা ডাকাতরা। তারপর তাকে রোহিঙ্গা ডাকাত মধ্যযুগীয় নির্যাতন করে এবং তিন লক্ষ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে। তিন লক্ষ টাকা না দিলে তাকে হত্যা করে লাশ ফেরত দিবে। এর আগেও অনেক অসহায় মানুষকে একই নিয়মে মুক্তিপণ ও হত্যার ছবি আবু বকর কে ডাকাতরা দেখিয়েছে বলে জানান,আবু বকর। অবশেষে নিরুপায় হয়ে আবু বকর দুই লক্ষ টাকা মুক্তিপণ দিয়ে প্রাণ রক্ষায় বাড়িতে চলে আসে বলে জানান।এলাকার বিশিষ্ট ব্যবসায়ী নুরুল হোসেন মিডিয়া কর্মীদের জানায়, গত ১৩জানুয়ারী রাত ১০টার সময় রোহিঙ্গা ডাকাতরা তার বাড়ির বাহিরে তালা লাগিয়ে দেয় এবং সাথে সাথে ভেতরে থাকা মহিলারা চিৎকর করলে স্থানীয় লোকেরা ছুটে আসে। ফলে রোহিঙ্গা ডাকাতরা স্থানীয়দের উপস্থিতি টের পেয়ে পালিয়ে যায়। উত্তর কান্জর পাড়া এলাকার বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মীর কাশেম আলী,নুর আহমদ,এবং সচেতন লোকেরা সংবাদকর্মীদের জানান,এভাবে যদি রোহিঙ্গারা আমাদের কে নির্যাতন করে,আমরা যদি আমাদের জমিতে চাষ করতে যেতে না পারি, তাহলে এই দেশে কি খেয়ে বেঁচে থাকব। এক প্রশ্নের জবাবে এলাকাবাসী জানান ,সরকার যদি রোহিঙ্গা সন্ত্রসীদের দমনের ব্যবস্থা ও স্থানীয়দের নিরাপত্তার ব্যবস্থা না করে, রোহিঙ্গা সন্ত্রসীরা দিন দিন নানা অপরাধমূলক কর্মকান্ডের জম্ম দিবে। বর্তমানে পাহাড়ি এলাকার আশপাশের মানুষের কোন নিরাপত্তা নেই। নেই জান মালের নিরাপত্তা ও। এসব এলাকার মানুষ চরম আতংকে রয়েছে।
হোয়াইক্যং ৫নং ইউপি সদস্য আব্দুল গফ্ফার জানান, রোহিঙ্গা অস্ত্রধারী বাহিনী করাচিপাড়া বড়খিল এর পশ্চিমে কুটি নামক স্থানে দিনের বেলায় অবস্থান করে। রাতের বেলায় এলাকায় এসে লুটপাট করে অথবা মানুষ অপরণ করে নিয়ে যায়। এর পর নির্যাতনের মাধ্যমে মুক্তিপণ আদায় করে। তিনি আরো বলেন, রাতে রোহিঙ্গা ডাকাতের ভয়ে করাচি পাড়া বড়খিল এর লোকেরা নিজের ভিটাবাড়ি ছেড়ে অন্য এলাকায় চলে যায় এবং দিনের বেলায় আবার ফিরে এসে নিজ বাড়িতে অবস্থান করে। উনচিপ্রাং দারুল ইরফান মুহিউস সুন্নাহ মাদ্রাসার শিক্ষক মাওঃমুজিবুল হক (রামপুরী হুজুর) জানান, মাদ্রাসার ছাত্ররা রাত্রে তাহাজ্জুদের নামাজ পড়তে উঠে।এখন আমরাও আতঙ্কে আছি যে কোন সময় মাদ্রাসার ছাত্রদের কে রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীরা অস্ত্রের মুখে তুলে নিয়ে যায়!হোয়াইক্যং মডেল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ মাও, নুর আহমদ আনোয়ারী বলেন,১৩ জানুয়ারী দিবাগত রাত্রে রোহিঙ্গা সন্ত্রসীরা যখন অস্ত্র সস্ত্র নিয়ে করাচি পাড়া আসে তখন স্থানীয় লোকেরা আমাকে জানালে,আমি বিষয়টি তাৎক্ষনিক ভাবে পুলিশকে ফোন দিয়ে অবহিত করি।পরে সরেজমিন এসে পুলিশ স্থানিয় জনতা কে নিয়ে করাচি পাড়া পরিদর্শন করেন। তিনি রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীদের দমনের ব্যবস্থা না করা হলে উক্ত এলাকায় প্রতিনিয়ত এই ধরণের দূর্ঘটনার সৃষ্টি হবে এবং সর্বোপরি আইনশৃংখলার ও অবনতি ঘটবে বলে মন্তব্য করেন। বর্তমানে সর্বত্র ডাকাত আতংক বিরাজ করছে।#

(10) বার এই নিউজটি পড়া হয়েছে

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।