Teknaf News24:: টেকনাফ নিউজ২৪ এ আপনাকে স্বাগতম
সংবাদ শিরোনাম :
«» পুড়ছে মসজিদ-ঘরবাড়ি আর দোকানপাট, নীরবে দেখছে দিল্লির পুলিশ «» হিন্দুত্ববাদী তাণ্ডবে দিল্লিতে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ২৭ «» রইক্ষং শেখ রাসেল স্মৃতি সংসদের উদ্দোগে পবিত্র খতমে বুখারী ও দোয়া মাহফিল সম্পন্ন:দেশ ও জাতির কল্যাণ কামনা করে বিশেষ মোনাজাত «» বিভিন্ন অনলাইন নিউজে প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদে মাওলানা মুজিবুররহমান «» টেকনাফ-সেন্টমার্টিন রুটে আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করেই চলছে পারিজাত ও দোয়েল জাহাজ «» মিয়ানমার থেকে পিয়াঁজ আমদানি অব্যাহতঃ কমছেনা দাম «» রোহিঙ্গা ডাকাতদের আতংকে এলাকাবাসীর ঘুম নেই :রাত জেগে পাহারা দিচ্ছে গ্রামবাসী «» রামু উপজেলার পূর্ব গোয়ালিয়ায় সন্ত্রাসী হামলায় নারী পুরুষ সহ আহত-৭ «» বন্দর ও জাহাজ নির্মাণে (দুবাই) ইউএই’র বিনিয়োগ কামনা করেছেন প্রধানমন্ত্রী «» বিশ্ব ইজতেমার আখেরি মোনাজাত সম্পন্ন «» আমিন আমিন’ ধ্বনিতে প্রকম্পিত তুরাগ তীর «» হোয়াইক্যংয়ে ছুরিকাঘাতে এক স্কুল ছাত্র নিহত «» ২৬ জানুয়ারী হ্নীলা উম্মে সালমা ইসলামিয়া মহিলা দাখিল মাদ্রাসার ২য় বার্ষিক ইসলামী সম্মেলন «» ইরাকে মার্কিন দূতাবাসের কাছে আবারো রকেট হামলা «» ইরানের ক্ষেপণাস্ত্রে কোনো মার্কিন সৈন্য মারা যায়নি: ট্রাম্প «» ইরাকে ইরানি হামলায় মার্কিন সামরিক ঘাঁটির রাডার ব্যবস্থা সম্পূর্ণ ধ্বংস! «» মাওলানা আবছার উদ্দিন চৌধুরী কে স্বপদে বহাল রাখায় আরব আমিরাতে শুকরানা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্টিত «» হারুন অর রশিদ এর মেয়ের জন্য দোয়া কামনা «» কক্সবাজারে ইয়াবা ও অস্ত্র উদ্ধারে রেকর্ড «» বাংলাদেশের পাকিস্তান সফর নিয়ে তাড়াহুড়া করা উচিত নয় «» ১০ বছরে ৯ লাখ হাজার কোটি টাকা বিদেশে পাচার হয়েছে: মেনন «» জেএসসি-পিইসি পরীক্ষার ফল প্রকাশ ৩১ ডিসেম্বর «» গ্রাম পুলিশকে ১৯ ও ২০তম গ্রেডে উন্নীত করার নির্দেশ «» ৫০ কোটি মার্কিন ডলার বিনিয়োগে এগিয়ে চলছে নাফ ট্যুরিজম পার্কের কার্যক্রম «» ইহুদিবাদী ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী নেতানিয়াহুর পদত্যাগের দাবিতে উত্তাল তেলআবিব «» টেকনাফ র‌্যাবের হাতে ২লাখ ইয়াবাসহ মিয়ানমার নাগরিক আটক «» রোহিঙ্গাদের দ্রুত ফেরত নিতে মিয়ানমারের প্রতি বান কি-মুনের আহ্বান «» মহেশখালীতে ১২ জলদস্যু বাহিনীর ৯৬ সদস্য অস্ত্র ও গুলি জমা দিয়ে আত্মসমর্পণ «» কার্গো বিমানে পেঁয়াজ আমদানির সিদ্ধান্ত «» দাম বাড়ায় রাতে পেঁয়াজ ক্ষেত পাহারা

তিন মাসে মালয়েশিয়া থেকে রেমিট্যান্স এসেছে ৩৮৪ কোটি টাকা

হেদায়ত উল্লাহ(মুন্না)কুয়ালালামপুর, মালয়েশিয়া থেকে:                                                    মালয়েশিয়া প্রবাসীরা গত তিন মাসে ৩৮৪ কোটি ৫৪ লাখ ৪ হাজার টাকা রেমিট্যান্স পাঠিয়েছেন। চলতি বছরের জুলাই থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত মালয়েশিয়া অগ্রণী রেমিট্যান্স হাউজ থেকে ১৩৩ কোটি টাকা এবং ন্যাশনাল ব্যাংকের মাধ্যমে ২৫১ কোটি ১৬ লাখ ৪ হাজার টাকা দেশে পাঠিয়েছেন তারা। চলতি বছরে গত তিন মাসে বৈধপথে এ পরিমাণ টাকা মালয়েশিয়া থেকে বাংলাদেশে পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন মালয়েশিয়াস্থ এনবিএল ও অগ্রণী রেমিট্যান্সের সংশ্লিষ্টরা। একই সঙ্গে রেমিট্যান্সে ২ শতাংশ নগদ প্রণোদনা দেয়াও শুরু হয়েছে। ১২ অক্টোবর থেকে প্রথমে অগ্রণী ব্যাংক এ প্রণোদনা দেয়া শুরু করে।

১৮ অক্টোবর মালয়েশিয়ার গ্রান্ড মিলেনিয়াম হোটেলে অগ্রণী রেমিটেন্স হাউজের ১৪ বছর পূর্তি অনুষ্ঠানে মালয়েশিয়া থেকে অগ্রণী রেমিট্যান্স হাউজের মাধ্যমে বৈধপথে দেশে সর্বোচ্চ অর্থ পাঠানোদের সম্মাননা দেয়া হয়। অনুষ্ঠানে যারা সম্মাননা পেয়েছেন তারা হলেন- সানওয়ে ইউনিভার্সিটির প্রফেসর সাইদুর রহমান, প্রফেসর মাইন খন্দকার ও প্রকৌশলী আমিনুল ইসলাম খোকন। ২০১৯-২০ অর্থবছরের বাজেটের ঘোষণা অনুযায়ী প্রবাসী বাংলাদেশিদের বৈধ চ্যানেলে প্রেরিত রেমিট্যান্স পাঠানোর বিপরীতে ২ শতাংশ হারে নগদ সহায়তা দেয়া হচ্ছে। মালয়েশিয়াস্থ অগ্রণী ব্যাংক নিয়ন্ত্রিত অগ্রণী রেমিট্যান্স হাউজের চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার ও ডিরেক্টর খালেদ মোর্শেদ রিজভী বলেন, সরকার রেমিট্যান্সকে বৈধ চ্যানেলে আনার জন্য উৎসাহ দিতে ২ শতাংশ হারে নগদ সহায়তার দেয়ার ঘোষণা দিয়েছে। তবে সিস্টেম ডেভেলপ করার জন্য এটা বাস্তবায়নে কিছুটা সময় লেগেছিল। এখন ব্যাংকে গেলেই রেমিট্যান্স পাঠাতে পারবেন এবং ২ শতাংশ হারে নগদ সহায়তা পাবেন। অর্থাৎ বৈধপথে দেশে ১ হাজার টাকা পাঠালে অ্যাকাউন্টে যোগ হবে ১ হাজার ২০ টাকা, লাখে ২ হাজার টাকা। সরকার রফতানিযোগ্য বিভিন্ন পণ্যে একাধিক হারে প্রণোদনা দিলেও এর বাইরে প্রথমবারের মতো সেবাখাত হিসেবে প্রবাসী আয়ে এ সুবিধা দেয়া হয়েছে। ব্যাংকিং চ্যানেলে রেমিট্যান্স পাঠানোকে উৎসাহিত করতে প্রবাসীদের এ সুবিধা দেয়া হয়েছে। সরকার আশা করছে, বিদেশে কর্মরত বাংলাদেশি অর্থাৎ প্রবাসীদের জন্য এ সুবিধা কার্যকর করায় দেশে বৈধপথে রেমিট্যান্সের পরিমাণ আরও বাড়বে। বাংলাদেশ ব্যাংকের হিসেব মতে, গত পাঁচ বছরে দেশে রেমিট্যান্স এসেছে ৭ হাজার ৪৪১ কোটি ৫৯ লাখ মার্কিন ডলার। বাংলাদেশি টাকায় যার পরিমাণ ৬ লাখ ৫৪ হাজার ৮৬০ কোটি টাকা (১ ডলার ৮৮ টাকা ধরে)। মালয়েশিয়া থেকে চলতি বছরের জুলাই থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত মোট ১৩৩ কোটি টাকা বাংলাদেশে প্রেরণ করেছেন প্রবাসীরা। এ অর্থ শুধু অগ্রণী রেমিটেন্স হাউজের মাধ্যমে প্রবাসীরা প্রেরণ করেছেন।

এছাড়া মালয়েশিয়াস্থ ন্যাশনাল ব্যাংকের মাধ্যমে বৈধপথে জুলাই থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ২৫১ কোটি ১৬ লাখ ৪ হাজার টাকা দেশে রেমিট্যান্স পাঠিয়েছেন প্রবাসীরা। মালয়েশিয়াস্থ এনবিএল রেমিট্যান্স হাউসের সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট শেখ আক্তার উদ্দিন আহমেদ সোমবার সাংবাদিকদেের বলেন, রেমিট্যান্স বৃদ্ধির লক্ষ্যে এনবিএলের পক্ষ থেকে সচেতনতামূলক সভা-সেমিনার করা হচ্ছে। ২ শতাংশ প্রণোদনা ঘোষণার পর থেকে সাধারণ প্রবাসীদের পাশাপাশি হুন্ডি ব্যবসায়িরাও বৈধপথে অর্থ প্রেরণে ভিড় করছেন। তিনি আরও বলেন, সাধারণ কর্মীদের কাছ থেকে টাকা এনে হুন্ডি ব্যবসায়িরা ব্যাংকের মাধমে পাঠিয়ে ২ শতাংশ প্রণোদনা নিয়ে যাচ্ছে। এ ক্ষেত্রে সাধারণ কর্মীরা প্রণোদনা পাওয়া থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। হুন্ডি ব্যবসায়ীদের অটকানো যাচ্ছে না। এ ব্যাপারে সরকারকে আরও কঠোর হতে হবে। বাংলাদেশ ব্যাংকের পরিসংখ্যানে দেখা যায়, বিগত পাঁচ অর্থবছরের মধ্যে ২০১৫-১৬ ও ২০১৬-১৭ অর্থবছরে রেমিট্যান্স নিম্নমুখী হলেও ২০১৭-১৮ ও ২০১৮-১৯ অর্থবছরে রেমিট্যান্স প্রবাহ বাড়তে শুরু করেছে। বিশেষ করে বিদায়ী অর্থবছরে দেশে রেকর্ড পরিমাণ ১ হাজার ৬৪১ কোটি ৯৬ লাখ মার্কিন ডলার রেমিট্যান্স দেশে এসেছে। যা বাংলাদেশি টাকায় ১ লাখ ৪৪ হাজার ৪৯২ কোটি টাকা। অন্যদিকে চলতি অর্থবছরের প্রথম মাস জুলাইয়ে প্রবাসীরা ১৫৯ কোটি ৭৭ লাখ ডলার রেমিট্যান্স পাঠিয়েছেন। যা বাংলাদেশের ইতিহাসে এক মাসে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রেমিট্যান্স।#

(10) বার এই নিউজটি পড়া হয়েছে

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।