,

সংবাদ শিরোনাম :
«» ভোটার তালিকায় রোহিঙ্গা ঠেকাতে ৩২ উপজেলায় ইসির কমিটি «» হোয়াইক্যংয়ের খলিল ইয়াবাসহ র‌্যাবের হাতে আটক «» উনছিপ্রাং স্কুলে একলাবের সভা অনুষ্টিতঃ মানবাধিকার রক্ষায় সুশীল সমাজকে এগিয়ে আসার আহ্বান «» টেকনাফ উপজেলা নির্বাচন : চেয়ারম্যান আলম ভাইস-চেয়ারম্যান ফেরদৌস ও তাহেরা নির্বাচিত «» বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্ক বিশ্বে একটি রোল মডেল: প্রধানমন্ত্রী «» বিক্ষোভে উত্তাল ঢাবি ক্যাম্পাস:সিলযুক্ত ব্যাটল বাক্স উদ্ধার «» টেকনাফে বিজিবি’র অভিযানে ৮ লাখ ৪০ হাজার ইয়াবা জব্দ «» পুলিশের বন্দুকযুদ্ধে মহেষখালিয়া পাড়ার আবদুর রহমান নিহত «» চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কে সৌদিয়া-মাইক্রো সংঘর্ষে নিহত 8 «» ভেজাল রোধে হবে খাবারের পরীক্ষাগার: প্রধানমন্ত্রী «» জেলা ও উপজেলায় মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্র স্থাপনে সমঝোতা স্মারক সই «» আত্মসমর্পণ প্রক্রিয়ার মধ্যেও বন্দুকযুদ্ধ «» ১৬ ফেব্রুয়ারি ইয়াবা ব্যবসায়ীদের আত্মসমর্পণ «» নারী কণ্ঠে গান গেয়ে চমক দেখালেন শাবনূর ভক্ত মিজান «» ইসলাম প্রেমে হেরে গেল ইসরায়েলের ১০০ মিলিয়ন ডলার «» প্রবাসী কর্মী নির্যাতন ঘটনায় আইনি পদক্ষেপ মালয়েশিয়ার «» সৌদি কারাগারে চুমু দিতে বাধ্য করা হয় নারী বন্দিদের «» তামাশার নির্বাচনের পর চা-চক্র বিবেকহীন আনন্দ: রুহুল কবির রিজভী «» চা-চক্রের নিমন্ত্রণে না গিয়ে বিএনপি আলোচনার সুযোগ হারিয়েছে: হানিফ «» তাবলিগ জামাতের বিভেদ মিটে গেছে – স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী «» আফগান যুদ্ধের ইতি টানতে রূপরেখা তৈরি মার্কিন-তালেবান «» মানবপাচার প্রতিরোধে সকলের সচেতন হওয়া উচিৎ :উখিয়ায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের যুগ্নসচিব «» বেতনের আওতায় নারী ফুটবলাররা «» উখিয়ায় মেজবানের রান্না করা মাংসে ‘আল্লাহু’ লেখা «» এনজিওতে স্থানীয়দের অগ্রাধিকার দেয়ার নির্দেশ জেলা প্রশাসক’র «» আরও ৩১ রোহিঙ্গাকে বাংলাদেশে পাঠাতে চায় ভারত «» সৌদি গণমাধ্যমে বাংলাদেশের চা «» সোনার বাংলা গড়তে সবার সহযোগিতা চাইলেন প্রধানমন্ত্রী «» ইয়াবা ব্যবসায়ীদের নামে বেনামের সম্পদ জব্দ ও শাস্তি নিশ্চিতের দাবী স্বচেতন মহলের «» জাতীয় পার্টি শক্ত বিরোধীদলের ভুমিকা রাখবে: রাঙ্গা

ইসলাম প্রেমে হেরে গেল ইসরায়েলের ১০০ মিলিয়ন ডলার

ইহুদিবাদি রাষ্ট্র ইসরায়েলের দেয়া ১০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের প্রস্তাব ফিরিয়ে দিয়েছেন হেবরনের এক ফিলিস্তিনি। পশ্চিম তীরের আল-সালাহ শহরের কাছে হেবরন এলাকায় একটি বাড়ি ও দোকান কিনতে পশ্চিম তীরের বাসিন্দা আবদুল রউফ আল-মহতাসেবকে ইসরায়েল সরকার ১০০ মিলিয়ন ডলারের প্রস্তাব দেন। পুরনো শহরটির কেন্দ্রস্থলে ইব্রাহিমি মসজিদ উপেক্ষা করে তিনি এমনটি করতে পারেন না জানিয়ে ইসরায়েলের এ প্রস্তাব ফিরিয়ে দেন।
আল-মহতাসেব তার বাড়ির ও দোকানের জন্য ইসরাইয়েলি সব ধরনের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেছেন। তিনি এ বিষয়ে আল-মায়াদিন টিভিতে দেয়া এক সাক্ষাতকারে বলেন, আমি ১০০ মিলিয়ন ডলারের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেছি। আমি পৃথিবীর সব টাকা ত্যাগ করতে পারি। তবে আমি আমার জন্মভূমি ও ধর্মের সঙ্গে বেঈমানি করতে পারি না। টাকা থাকা ভালো, তবে তা যখন পরিষ্কার হয়।
আল-মহতাসেব বলেন, আমাকে দেয়া প্রস্তাবটি প্রথমে ৬ মিলিয়ন ছিল। পরে এটি বেড়ে ৪০ মিলিয়ন এবং অবশেষে ১০০ মিলিয়নে দাঁড়ায়। তিনি জানান, জোর করেও তার অবস্থান পরিবর্তন করতে পারেনি। তিনি আরও জানান, তিনি ইব্রাহিমি মসজিদের পাহারায় থাকবেন। ইসরায়েলি মধ্যস্তকারীরা তাকে অস্ট্রেলিয়া বা কানাডায় নতুন জীবন শুরু করতে সাহায্য করবে। এ ছাড়াও নতুন ব্যবসারও ব্যবস্থা করবেন। কিন্তু তিনি সব ধরনের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেছেন বলে জানান।
ইসরায়েলি মধ্যস্থকারীরা তার বাড়ির মূল্য আরও বৃদ্ধি করতে চায় বলে আল-মহতাসেব জোর দিয়ে বলেন। কিন্তু তিনি জন্মভূমিকে ভালোবাসেন। তিনি তার ২০ নাতি-নাতনি নিয়ে বাকি জীবন হেবরনে কাটিয়ে দিতে চান। তিনি দুঃখ করে বলেন, আমি আমার শৈশব কাটিয়েছি এখানে। কিন্তু আমার নাতি-নাতনিদের এখান থেকে বঞ্চিত করতে চাই না।
আমি পেশাগত কারণে জর্ডান ভ্রমণ বাতিল করি এবং ফিরে আসি হেবরনে। আমরা প্রকৃত জেলখানায় বসবাস করছি। তিনি বলেন, ‘ইসরায়েলি দালাল বোয়াজ আমার কাছে ৩০ মিলিয়ন ডলারের প্রস্তাব নিয়ে এসেছিল। একটি ইট নিয়ে বললাম তুমি কি এ ইট কিনতে চাও?’ সে বলল, আমি পুরো বাড়ি কিনতে চাই। আল-মহতাসেব প্রতিউত্তরে বলেন, একটি ইটের দামও ৩০ মিলিয়ন যথেষ্ট নয়। সূত্র: মিডল ইস্ট মনিটর।

(10) বার এই নিউজটি পড়া হয়েছে

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।