,

সংবাদ শিরোনাম :
«» চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কে সৌদিয়া-মাইক্রো সংঘর্ষে নিহত 8 «» ভেজাল রোধে হবে খাবারের পরীক্ষাগার: প্রধানমন্ত্রী «» জেলা ও উপজেলায় মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্র স্থাপনে সমঝোতা স্মারক সই «» আত্মসমর্পণ প্রক্রিয়ার মধ্যেও বন্দুকযুদ্ধ «» ১৬ ফেব্রুয়ারি ইয়াবা ব্যবসায়ীদের আত্মসমর্পণ «» নারী কণ্ঠে গান গেয়ে চমক দেখালেন শাবনূর ভক্ত মিজান «» ইসলাম প্রেমে হেরে গেল ইসরায়েলের ১০০ মিলিয়ন ডলার «» প্রবাসী কর্মী নির্যাতন ঘটনায় আইনি পদক্ষেপ মালয়েশিয়ার «» সৌদি কারাগারে চুমু দিতে বাধ্য করা হয় নারী বন্দিদের «» তামাশার নির্বাচনের পর চা-চক্র বিবেকহীন আনন্দ: রুহুল কবির রিজভী «» চা-চক্রের নিমন্ত্রণে না গিয়ে বিএনপি আলোচনার সুযোগ হারিয়েছে: হানিফ «» তাবলিগ জামাতের বিভেদ মিটে গেছে – স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী «» আফগান যুদ্ধের ইতি টানতে রূপরেখা তৈরি মার্কিন-তালেবান «» মানবপাচার প্রতিরোধে সকলের সচেতন হওয়া উচিৎ :উখিয়ায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের যুগ্নসচিব «» বেতনের আওতায় নারী ফুটবলাররা «» উখিয়ায় মেজবানের রান্না করা মাংসে ‘আল্লাহু’ লেখা «» এনজিওতে স্থানীয়দের অগ্রাধিকার দেয়ার নির্দেশ জেলা প্রশাসক’র «» আরও ৩১ রোহিঙ্গাকে বাংলাদেশে পাঠাতে চায় ভারত «» সৌদি গণমাধ্যমে বাংলাদেশের চা «» সোনার বাংলা গড়তে সবার সহযোগিতা চাইলেন প্রধানমন্ত্রী «» ইয়াবা ব্যবসায়ীদের নামে বেনামের সম্পদ জব্দ ও শাস্তি নিশ্চিতের দাবী স্বচেতন মহলের «» জাতীয় পার্টি শক্ত বিরোধীদলের ভুমিকা রাখবে: রাঙ্গা «» মিস কালচার ওয়ার্ল্ড মুকুট জিতলেন প্রিয়তা «» সাগরপথে মানবপাচার বন্ধ হচ্ছে না , চক্রের টার্গেট এবার রোহিঙ্গা ক্যাম্প «» সুশাসন নিশ্চিত করাই নতুন সরকারের প্রধান চ্যালেঞ্জ: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী «» সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে কারও অনুমতি নেবে না তুরস্ক: এরদোগান «» তাবলিগের সংকট নিরসনে দেওবন্দে যাচ্ছেন ধর্মপ্রতিমন্ত্রীর নেতৃত্বে প্রতিনিধি দল «» এ সময়ের সবচেয়ে দামি ফুটবলার কে? «» টেকনাফ ৫০ শয্যা হাসপাতালে একযোগে ১২ জন নার্স যোগদান «» যে কারণে সিরিয়া থেকে ইরানি সেনা সরাতে চায় ইসরাইল

এনজিওতে স্থানীয়দের অগ্রাধিকার দেয়ার নির্দেশ জেলা প্রশাসক’র

কক্সবাজারের রোহিঙ্গা ক্যাম্পের এনজিওর চাকরিতে স্থানীয়দের অগ্রাধিকার দেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক মোঃ কামাল হোসেন। একই সাথে স্থানীয়দের জন্য চাকরি পেতে যোগ্যতা শিথিল করার নির্দেশও দেন জেলা প্রশাসক। একই সাথে স্থানীয়দের বিনা কারনে চাকরিচ্যুতের অভিযোগের সত্যতা পেলে ঐ এনজিওর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। রোহিঙ্গা ক্যাম্পে স্থানিয়দের ন্যায্য আন্দোলনের পরিপেক্ষিতে এই নির্দেশনা দেয়ার কথা সাংবাদিকদের জানান জেলা প্রশাসক মোঃ কামাল হোসেন।

কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ কামাল হোসেন জানান, রোহিঙ্গা আসার কারনে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে উখিয়া-টেকনাফের স্থানিয়রা। সাম্প্রতিক সময়ে কিছু কিছু এনজিওতে স্থানিয়দের চাকরি থেকে ছাটাই করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। রোহিঙ্গা ক্যাম্পে চাকরি স্থানিয়দের অধিকার। এই ব্যাপারে সরকারের নির্দেশনাও আছে। ছাটাইয়ের এই অভিযোগ তদন্ত করে সত্যতা পাওয়া গেলে এনজিওর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক মোঃ কামাল হোসেন আরো জানান, স্থানিয়রা অভিযোগ করেছে কিছু কিছু এনজিও বিভিন্ন চাকরিতে অযৌক্তিক ভাবে উচ্চতর যোগ্যতা চাচ্ছে। কোন এনজিওতে খাদ্য সরবরাহকারী বা খাদ্য সামগ্রী বিতরনের জন্য মাস্টার্স পাশ করার লোক চাচ্ছে। এইটি সম্পুর্ন অযৌক্তিক। তাই স্থানিয়দের চাকরি পাওয়ার সুবিধার জন্য যোগ্যতা শিথিল করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

এই সংক্রান্তে আগামী ২৭ জানুয়ারী এনজিও সমন্বয় সভা ডাকার কথা জানান জেলা প্রশাসক।  এই ব্যাপারে এনজিওতে স্থানিয়দের চাকরির অধিকার নিয়ে আন্দোলনের নেতা ইমরুল কায়েস চৌধুরী বলেন, স্থানিয়দের চাকরির জন্য এনজিওদের প্রতি জেলা প্রশাসকের নির্দেশনা আন্দোলনের প্রথম সফলতা। জেলা প্রশাসকের সিদ্ধান্ত এনজিওরা কতটুকু বাস্তবায়ন করছে সেটি এখন দেখার বিষয়। এছাড়াও তাদের সকল যোক্তিক দাবি মেনে নেয়ার আহবান জানান তিনি। যদি এনজিওরা ২৭ জানুয়ারীর ভেতরে জেলা প্রশাসনের নির্দেশনা না মানে তাহলে বৃহত্তর আন্দোলনের মাধ্যমে স্থানিয়দের দাবি মানতে এনজিওদের বাধ্য করা হবে।

(10) বার এই নিউজটি পড়া হয়েছে

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।