,

সংবাদ শিরোনাম :
«» বেতনের আওতায় নারী ফুটবলাররা «» উখিয়ায় মেজবানের রান্না করা মাংসে ‘আল্লাহু’ লেখা «» এনজিওতে স্থানীয়দের অগ্রাধিকার দেয়ার নির্দেশ জেলা প্রশাসক’র «» আরও ৩১ রোহিঙ্গাকে বাংলাদেশে পাঠাতে চায় ভারত «» সৌদি গণমাধ্যমে বাংলাদেশের চা «» সোনার বাংলা গড়তে সবার সহযোগিতা চাইলেন প্রধানমন্ত্রী «» ইয়াবা ব্যবসায়ীদের নামে বেনামের সম্পদ জব্দ ও শাস্তি নিশ্চিতের দাবী স্বচেতন মহলের «» জাতীয় পার্টি শক্ত বিরোধীদলের ভুমিকা রাখবে: রাঙ্গা «» মিস কালচার ওয়ার্ল্ড মুকুট জিতলেন প্রিয়তা «» সাগরপথে মানবপাচার বন্ধ হচ্ছে না , চক্রের টার্গেট এবার রোহিঙ্গা ক্যাম্প «» সুশাসন নিশ্চিত করাই নতুন সরকারের প্রধান চ্যালেঞ্জ: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী «» সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে কারও অনুমতি নেবে না তুরস্ক: এরদোগান «» তাবলিগের সংকট নিরসনে দেওবন্দে যাচ্ছেন ধর্মপ্রতিমন্ত্রীর নেতৃত্বে প্রতিনিধি দল «» এ সময়ের সবচেয়ে দামি ফুটবলার কে? «» টেকনাফ ৫০ শয্যা হাসপাতালে একযোগে ১২ জন নার্স যোগদান «» যে কারণে সিরিয়া থেকে ইরানি সেনা সরাতে চায় ইসরাইল «» নির্বাচন নিয়ে টিআইবির প্রতিবেদন মনগড়া: ইসি রফিকুল «» ৫০ আসনের ৪৭ টিতে অনিয়ম, আগের রাতে সিল ৩৩টিতে : টিআইবি «» ঐক্যফ্রন্টের নির্বাচনের দাবি মোটেও সাংবিধানিক নয় : আইনমন্ত্রী «» ভোট কারচুপির জন্য আওয়ামী লীগকে জাতির কাছে ক্ষমা চাইতে হবে : ফখরুল «» নির্বাচনের প্রভাবে কক্সবাজারে হ্রাস পেয়েছে পর্যটকদের উপস্থিতি «» রোহিঙ্গা শিবিরে জন্ম নেয়া শিশুদের কান্না «» তফসীলের পর কক্সবাজারের চারটি আসনে ৬৯ মামলা : ৫ সহস্রাধিক আসামী «» আনন্দবাজারকে শেখ হাসিনা: আমরাই আসছি, মানুষ আমাদের চাইছেন «» শীতকালীন দলবদল: নেইমার-এমবাপ্পের নতুন বন্ধু হচ্ছেন কে? «» সৌদি আরবের জন্য উদ্বেগভরা একটি বছর শেষ: একসঙ্গে নাচলেন তরুণ-তরুণীরা «» সিইসির সঙ্গে মার্কিন রাষ্ট্রদূতের বৈঠক: ভোটের দিন সহিংসতার আশঙ্কা যুক্তরাষ্ট্রের «» বাংলাদেশের নির্বাচনে ভীতিহীন পরিবেশ নিশ্চিতের আহ্বান জাতিসংঘ মহাসচিবের «» তিউনিশিয়ায় দুঃশাসনের প্রতিবাদে গায়ে আগুন দিয়ে এক সাংবাদিকের আত্মহত্যা «» ভোট পাবে না জেনেই বিএনপি সহিংসতা করছে: প্রধানমন্ত্রী

সৌদি আরবের জন্য উদ্বেগভরা একটি বছর শেষ: একসঙ্গে নাচলেন তরুণ-তরুণীরা

সৌদি আরবের জন্য উদ্বেগভরা একটি বছর শেষ হতে চলেছে। সাংবাদিক জামাল খাসোগি হত্যায় আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় সৌদি যুবরাজ মোহাম্মাদ বিন সালমানের (৩৩) মুণ্ডুপাত করছেন। পরিস্থিতি আরও গরম হওয়ার আশঙ্কা বিশেষজ্ঞদের মনে। এরই মধ্যে সৌদি আরবে নতুন এক সাংস্কৃতিক সংস্কারের খবর জানা গেছে। নারী-পুরুষের একসঙ্গে কনসার্ট দেখার ওপর নিষেধাজ্ঞা তুলে নিয়েছে দেশটি।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া একটি কনসার্টের ভিডিওতে দেখা যায়, হাজার হাজার সৌদি তরুণ-তরুণী একটি ডিজে (ডিস্ক জকি) সংগীতের সঙ্গে নাচছেন। সৌদি সরকারের সরাসরি পৃষ্ঠপোষকতায় কনসার্টটি ১৪ ডিসেম্বর সৌদির রাজধানী রিয়াদে আয়োজন করা হয়। ফরাসি সংগীত তারকা দেভিদ গিতা এই কনসার্টকে মাতিয়ে তোলেন। রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের দাবি, এর মাধ্যমে যুবরাজ বিন সালমান বিশ্বকে দেখাতে চাইছেন, সৌদি আরব সংস্কারের পথেই আছে। ধীরে ধীরে সমাজে আধুনিকায়ন নিয়ে আসছে তারা। যে সংস্কার কর্মসূচির মাধ্যমে বিশ্বের পাদপ্রদীপের আলো কেড়েছিলেন তরুণ বিন সালমান, তা এখনো জারি আছে।

যুবরাজ বিন সালমান গত জুনে সৌদি আরবে নারীদের গাড়ি চালানোর ওপর নিষেধাজ্ঞা তুলে দেন। ওই মাসে পারিবারিক অনুষ্ঠানে এক সৌদি তরুণীর নাচের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ঝড় তোলে। তখন অভিযোগ উঠেছিল, মুসলিম দেশের আচরণবিধি লঙ্ঘন করেছেন ওই তরুণী। এখন নারীদের নাচার ওপর বিধিনিষেধ তুলে দিয়ে দেশটি সাংস্কৃতিক সংস্কার কর্মসূচি এগিয়ে নেওয়ারই বার্তা দিল। উপরন্তু নারী-পুরুষের একসঙ্গে নাচারও বিরল সুযোগ দিল সরকার।

তবে সমালোচকদের দাবি, সাংবাদিক জামাল খাসোগি খুনের পর সৌদিবিরোধী বিশ্বজনমতের দৃষ্টি ভিন্ন দিকে সরিয়ে নিতেই এটি বিন সালমানের একটি কূটচাল। তাঁরা বলেন, সৌদি যুবরাজ যদিও সাংস্কৃতিক পরিবর্তন নিয়ে আসছেন, তবু রাজপরিবারের কোনো সমালোচনা এখনো সহ্য করতে পারেন না তিনি।

(10) বার এই নিউজটি পড়া হয়েছে

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।