,

সংবাদ শিরোনাম :
«» আমিরাতে সৌদির তেলবাহী জাহাজে হামলা «» অতিরিক্ত গরমে টেকনাফে ভাইরাস জর ও ডায়রিয়ার প্রাদুর্ভাব «» উখিয়ায় ২১ ঘন্টা বিদ্যুৎ : টেকনাফে ১৩ ঘন্টা লোডশেডিং কেন? «» আজ বিশ্ব মা দিবস «» টেকনাফে দেড় কোটি টাকার ইয়াবা উদ্ধার «» গণতন্ত্রের জন্য ঈদের আগেই খালেদাকে মুক্তি দিন :জাফরুল্লাহ «» ১২ বছরের শিশুর পেটে আরেক শিশু! «» মিয়ানমারে ফের বিমান দুর্ঘটনা ! «» ফাইনালের আগেই যে পরিবারের আইপিএল ট্রফি নিশ্চিত! «» ১৫ মে দেশে ফিরছেন ওবায়দুল কাদের «» ৫২টি মানহীন ও ভেজাল পণ্য আগামী ১০ দিনের মধ্যে বাজার থেকে তুলে নেয়ার নির্দেশ আদালতর «» মধ্যরাতে ৮০-১০০ কিলোমিটার বেগে আঘাত হানবে ‘ফণী’ «» ঘূর্ণিঝড় ‘ফণী’র কারণে এইচএসসির শনিবারের সব পরীক্ষা ১৪ মে «» চট্টগ্রামে ৬ ও কক্সবাজারে ৪ নম্বর বিপদ সংকেত «» লেদার ইয়াবা কারবারী তাহেরের বাড়ি হতে ৬০ হাজার ইয়াবাসহ আটক-৩ «» টেকনাফ সদর ইউনিয়ন পরিষদে মানবাধিকার বিষয়ে একলাবের মত বিনিময় সভা অনুষ্টিত «» টেকনাফের সহকারী কমিশনার (ভূমি) পদোন্নতি পেয়ে রামুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার হওয়ায় টেকনাফ সাংবাদিক সমিতির বিদায় সংবর্ধনা সভা অনুষ্ঠিত «» জঙ্গি আস্তানায় র‌্যাবের অভিযান, গোলাগুলি-বিস্ফোরণ «» ৭ মে থেকে রোজা শুরু হতে পারে «» আজ ভয়াল সেই ২৯ এপ্রিল «» মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থা সিআইএ’র সৃষ্টি “আইএস” «» আগামী প্রজম্ম কে বাচাতে হলে মাদক প্রতিরোধে শ্রমিক মালিক সকল কে এগিয়ে আসতে হবে-আব্দুররহমান বদি «» গণমাধ্যমকর্মীদের সুরক্ষায় দুটি আইন আসছে: তথ্যমন্ত্রী «» উখিয়ার কুতুপালং লম্বাশিয়া এলাকাস্থ রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আগুন «» ভোটার তালিকায় রোহিঙ্গা ঠেকাতে ৩২ উপজেলায় ইসির কমিটি «» হোয়াইক্যংয়ের খলিল ইয়াবাসহ র‌্যাবের হাতে আটক «» উনছিপ্রাং স্কুলে একলাবের সভা অনুষ্টিতঃ মানবাধিকার রক্ষায় সুশীল সমাজকে এগিয়ে আসার আহ্বান «» টেকনাফ উপজেলা নির্বাচন : চেয়ারম্যান আলম ভাইস-চেয়ারম্যান ফেরদৌস ও তাহেরা নির্বাচিত «» বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্ক বিশ্বে একটি রোল মডেল: প্রধানমন্ত্রী «» বিক্ষোভে উত্তাল ঢাবি ক্যাম্পাস:সিলযুক্ত ব্যাটল বাক্স উদ্ধার

পরকীয়া অপরাধ নয় : ভারতের সুপ্রিম কোর্টের রায়

বৃহস্পতিবার, ২৭ সেপ্টেম্বর:
পরকীয়া অপরাধ নয়। তবে বিবাহ বিচ্ছেদের কারণ হতে পারে। ভারতীয় দণ্ডবিধির পরকীয়া সংক্রান্ত ৪৯৭ ধারাকে অসাংবিধানিক বলে রায় দিয়েছেন সুপ্রিম কোর্ট। রায়ে প্রধান বিচারপতির পর্যবেক্ষণ, এই আইন স্বেচ্ছাচারীতার নামান্তর। নারীদের স্বাতন্ত্র্য খর্ব করে।

ইংরেজ শাসনামলে তৈরি আইনকে চ্যালেঞ্জ করে দায়ের হওয়া একটি মামলার প্রেক্ষিতেই এই রায় দিল শীর্ষ আদালত।১৮৬০ সালের ওই আইনে বলা হয়েছে, কোনও ব্যক্তি কোনও নারীর সঙ্গে যৌন সম্পর্ক করলে এবং ওই নারীর স্বামীর অনুমতি না থাকলে পাঁচ বছর পর্যন্ত কারাদণ্ড এবং জরিমানা বা উভয়ই হতে পারে।

এই আইনকে চ্যালেঞ্জ করেই একাধিক মামলা দায়ের করা হয়। মামলাকারীদের দাবি ছিল, ঔপনিবেশিক শাসনামলের ওই আইনে নারীদের সম্পত্তি হিসাবে গণ্য করে এই আইন তৈরি হয়েছিল। কিন্তু বর্তমান সমাজ ব্যবস্থার প্রেক্ষিতে এই আইন বাতিল করা উচিত। আরও দাবি করা হয়েছে, একই অপরাধে পুরুষকে দোষী করলে নারীদেরও দোষী করতে হবে। এই মামলাতেই রায় দিয়ে সুপ্রিম কোর্ট জানিয়েছে পরকীয়া আর অপরাধ বলে গণ্য হবে না।

শীর্ষ আদালত বলছে, নিছক পরকীয়া কখনও অপরাধ হতে পারে না। পরকীয়া সম্পর্কের কারণে জীবনসঙ্গী যদি আত্মহত্যা করেন এবং আদালতে যদি তার প্রমাণ দাখিল করা যায় তবেই এটি অপরাধে প্ররোচনা হিসেবে গণ্য হবে।

রায় দিতে গিয়ে সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি দীপক মিশ্র ও বিচারপতি এএম খানউইলকর বলেন, পরকীয়া বিবাহবিচ্ছেদের কারণ হতে পারে। তবে এটা অপরাধ হিসেবে গণ্য হতে পারে না। একই মত জানিয়ে বিচারপতি আরএফ নরিম্যানও বলেন, ৪৯৭ ধারা একটা সেকেলে আইন। এটা অসাংবিধানিক এবং এটি বাতিল করা উচিত।

পাঁচ বিচারপতির বেঞ্চের আর এক বিচারপতি ডিওয়াই চন্দ্রচূড় বলেন, এই ধারা নারীদের সম্ভ্রম ও আত্মসম্মানের পক্ষে ধ্বংসাত্মক। কারণ এই আইন নারীকে স্বামীর ভূমিদাস হিসেবে বিবেচনা করে। শীর্ষ আদালতের সাংবিধানিক বেঞ্চের একমাত্র নারী বিচারপতি ইন্দু মালহোত্রাও একই মত পোষণ করেন।

তিনিও ৪৯৭ ধারাকে অসাংবিধানিক হিসেবে চিহ্নিত করে বলেন, বৈবাহিক সম্পর্কে স্ত্রী কখনোই স্বামীর ছায়া নন। প্রধান বিচারপতিও একই সুরে বলেছেন, নারীর ব্যক্তিগত সম্ভ্রম রক্ষা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। স্বামী তার প্রভূ নন। আইনগতভাবে স্বামীর চেয়ে স্ত্রীকে ছোট করে দেখানোটা ভুল।

(10) বার এই নিউজটি পড়া হয়েছে

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।